ঈদে বাবার বাড়ি যেতে চাওয়ায় স্ত্রী’কে উপা’রে পাঠালেন স্বামী

কুষ্টিয়ায় ঈদে বাবার বাড়ি যেতে চাওয়ায় স্ত্রীকে ন তনি;’র অ’যোগ উঠেছে স্বামীর বি’দ্ধে। বুধবার সকালে কুষ্টিয়া পৌরসভার ১৫ নম্বর ওয়ার্ডের মঙ্গলবাড়িয়া এলাকায় আকবর অয়েল মিলের পেছনের বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত সোনিয়া খাতুন সদর উপজেলার আইলচারা ইউনিয়নের বড় আইলচারা গ্রামের ছয়ফল মণ্ডলের মেয়ে। তার স্বামী বিপুল হোসেন কুষ্টিয়া পৌরসভার ১৫ নম্বর ওয়ার্ডের মঙ্গলবাড়িয়া এলাকার বিশু মণ্ডলের ছেলে। তাদের ১৩ মাস বয়সী একটি ছেলে রয়েছে।

পুলিশ, নি’তের পরিবার ও স্থানীয়রা জানিয়েছে, দুই বছর আগে পারিবারিকভাবে বিয়ে হয় বিপুল-সোনিয়ার। বিয়ের পর থেকে তাদের মধ্যে কলহ লেগেই থাকত। কল’হের জেরে প্রায়ই সোনিয়াকে ’ করতেন স্বামী বিপুল। মঙ্গলবার রাতে ও বুধবার সকালে ঈদে বাবার বাড়িতে যাওয়া নিয়ে স্বামীর সঙ্গে কথা কা’’টি হয় সোনিয়ার। এক পর্যায়ে বিপুলের মা‘-র’রে মৃ’ত্যু হয় তার। খবর পেয়ে লা’ উদ্’’র করে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে পাঠায় পুলিশ।

নি’র বাবা ছয়ফল মণ্ডল বলেন, বিয়ের পর থেকেই কারণে-অকারণে সোনিয়ার উপর নি’যত’ন করত বিপুল। আমরা তাদের বাড়িতে গেলে বিপুল আমাদের অ’মান করে তা’ড়িয়ে দিত। গত এক বছর আমরাও মেয়েকে দেখতে পারিনি, মেয়েও আমাদের কাছে আসতে পারেনি।

তিনি আরো বলেন, সোনিয়া এবার আমাদের বাড়িতে ঈদ করতে চেয়েছিল। এ কারণেই সোনিয়ার উপর নি’ ’তন চালা’নো হয়। বুধবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে আমরা খবর পাই সোনিয়া মা’ গেছে। বিপুল ও তার পরিবারের লোকজন আমার মেয়েকে মেয়েকে নি’হন ও শ্বা’রো’ধ করে মে’নি;রে ফেলেছে। আমি তাদের বি’চার চাই।

 

অভি-যুক্ত বিপুল হোসেন বলেন, সোনিয়া বাবার বাড়িতে ঈদ করার জন্য যেতে চেয়েছিল, কিন্তু আমার মা-বাবা রাজি হয়নি। এ নিয়ে দুইদিন ধরে সংসারে অ-ন্তি চলছিল। মঙ্গলবার রাতে আমি সোনিয়াকে  লাম। এজন্য অ-মানে বুধবার সকালে সে ফাঁ-দিয়ে -4ত্যা করেছে। আমি তাকে হ-যা করিনি।

কুষ্টিয়া মডেল থানার ওসি মোহাম্মদ শওকত কবির জানান, – উদ্-ধার করে ময়-তের জন্য কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।- প্রতিবেদন দেখে? প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে। এছাড়া পুলিশ বিষয়টি খতিয়ে দেখছে।’

Check Also

কাঁচা-পাকা মাল্টায় ভরে গেছে পঞ্চগড়ের বাগান

পঞ্চগড়ে দিনের পর দিন বাড়ছে মালটাচাষ। প্রচার লাভ এবং খেতে অত্যন্ত সুস্বাদু হওয়ায় চাষিদের আগ্রহ …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *