স্ত্রীর ওড়না পরে থাকেন স্বামী, লুঙ্গি কেনার পয়সা নেই!

পটুয়াখালী শহরের ১ নম্বর ওয়ার্ডের প্রথম লেন বোহালগাছিয়া এলাকার সকিনা বেগম ভি’ক্ষা করে মানুষের বাসার পান্তা ভাত এনে সেই ভাত রোদে শুকিয়ে চালের মতো শক্ত হলে তা আবার রান্না করে খেয়ে সংসার চালাচ্ছেন।

সংসারে এমনই যখন অ’ুওভাব তখন তাদের নতুন পোশাকের প্রশ্নই আসেনা। তাই স্বামী সুলতান ডাক্তার লুঙ্গির অভাবে বৌয়ের ওড়না পরেন। সেটাও আবার মানুষের পুরান কাপড়।

বৃদ্ধ সুলতান ডাক্তার বলেন, ‘ক র কারণে এখন আর কাজ করতে পারি না। আয় না থাকলেও প্রতিদিন ৪০ টাকার ওষুধ খাওয়া লাগে। ওষুধ না খেলে বিছানা থেকে ওঠা দায়।

আমি বেঁছে থাকতে সংসার চালানোর কথা আমার কিন্তু এখন বৌ আমাকে ভিক্ষা করে খাওয়ায়। তিনি বলেন, দুই বেলা ভাত খাওয়ার টাকা নাই তার মধ্যে লুঙ্গি কিনমু কেমনে?

আমার পরার মতো লুঙ্গি নাই। পুরান যে লুঙ্গি আছে তাও সব জায়গা দিয়ে ছেড়া। তাই ঘরে বৌয়ের ওড়না পড়ে থাকি।

স্ত্রী সকিনা বেগম বলেন, ‘আমরা ভি’ঙযক্ষা করে খেয়ে না খেয়ে থাকি তারপরও সরকারি কোনো সহায়তা পাই না। বয়স্ক ভাতার জন্য মেম্বার (পটুয়াখালী পৌরসভার ১ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর নিজাম উদ্দিন) অনেক আগে নাম নিয়েছে। কিন্তু এখনও বয়স্ক ভা’তার কোনো খবর নেই।

Check Also

কাঁচা-পাকা মাল্টায় ভরে গেছে পঞ্চগড়ের বাগান

পঞ্চগড়ে দিনের পর দিন বাড়ছে মালটাচাষ। প্রচার লাভ এবং খেতে অত্যন্ত সুস্বাদু হওয়ায় চাষিদের আগ্রহ …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *